ঢাকা-আরিচা মহাসড়কেও ভাঙল পুলিশি ব্যারিকেড

কোটা সংস্কারের দাবিতে পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী পুলিশি বাঁধা ভেঙে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে অবরোধ করে বিক্ষোভ করছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) শিক্ষার্থীরা। প্রায় দেড় ঘণ্টা ধরে অবরোধ কর্মসূচি পালন করছেন তারা।

বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) বিকেল ৪টার দিকে পুলিশি ব্যারিকেড ভেঙে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের ডেইরি গেট এলাকায় অবরোধ মহাসড়ক অবরোধ করেন কোটা বিরোধী শিক্ষার্থীরা। ঘটনাস্থলে জলকামান নিয়ে ঢাকা জেলার বিভিন্ন থানার কয়েক শতাধিক পুলিশ সদস্যদের সতর্ক অবস্থানে থাকতে দেখা গেছে।

এর আগে বিপুল সংখ্যক পুলিশ সদস্য ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের ডেইরি গেইট এলাকায় অবস্থান নেয়। শিক্ষার্থীরা সড়কে আসার আগ থেকেই পুলিশ সদস্যরা যে যার মতো অবস্থান নিতে শুরু করেন।

এ অবস্থায় বিকেল তিনটায় বাংলা ব্লকেড কর্মসূচি শুরু হওয়ার কথা থাকলেও শিক্ষার্থীরা শুরু করেন আরও পরে। বিকেল ৪টার দিকে তারা ক্যাম্পাসে ভেতর থেকে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকে এসে জড়ো হন। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন তাদের সড়ক অবরোধ না করার অনুরোধ জানায়।

কিন্তু এসব বাধা ও সড়কে পুলিশের ব্যারিকেড ভেঙে অবরোধ শুরু করেন শিক্ষার্থীরা। ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে অবস্থান নিয়ে তারা বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকেন।

কোটা সংস্কার আন্দোলন থেকে শিক্ষার্থীরা জানান, অযৌক্তিক কোটা পদ্ধতি সংস্কারের দাবিতে যৌক্তিক আন্দোলন করা হচ্ছে। কিন্তু প্রশাসনের পেটোয়া বাহিনীর লোকেরা সেই আন্দোলনকে বাধাগ্রস্ত করতে নানা ফন্দি আঁটছে। সারা বাংলার শিক্ষার্থীদের কোনোভাবেই দমিয়ে রাখা যাবে না। যেকোনো মূল্যে আমরা দাবি আদায় করেই ছাড়বো। আমাদের অবরোধ কর্মসূচি চলবে।

ঢাকা জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম অ্যান্ড অবস) আব্দুল্লাহিল কাফি বাংলানিউজকে বলেন, গত কয়েক দিন ধরে শিক্ষার্থীরা ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের মতো গুরুত্বপূর্ণ সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করছেন। এতে করে সাধারণ মানুষ চরম দুর্ভোগে পড়েছেন। যে কারণে আমরা শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধ না করে ক্যাম্পাসের ভিতরে অবস্থানের অনুরোধ করছিলাম। কিন্তু শিক্ষার্থীরা তারপরও সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করছে। আমরা যেকোনো ধরণের বিশৃঙ্খলা এড়াতে সতর্ক অবস্থানে আছি।