টেকনাফে উন্নয়ন সংস্থা এএসডির উদ্যোগে  কেইস ব্যবস্থাপনা বিষয়ে প্রশিক্ষণ

শামসু উদ্দীন, টেকনাফ কক্সবাজার:
উন্নয়ন সংস্থা ‘এএসডি’ কর্তৃক ‘কেইস  ম্যানেজমেন্ট এর উদ্যোগে প্রশিক্ষণ’ কর্মশালা সম্পন্ন হয়েছে।বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা অ্যাকশন ফর সোশ্যাল ডেভেলপমেন্ট (এএসডি) যুব ফোরামকে সম্পৃক্ত করে শিশু সুরক্ষা ও কিশোর-কিশোরীদের উন্নয়নে টেকনাফ উপজেলায় কাজ করে যাচ্ছে। এএসডি এর উদ্যোগে টেকনাফ উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে (২,৩ ও ৪)তিন দিন ব্যাপী কেইস ম্যানেজমেন্ট প্রশিক্ষণ গতকাল সম্পন্ন করা হয়। উল্লেখ্য যে, এএসডি দাতা সংস্থা জার্মান ফেডারেল ফরেন অফিস (জিএফএফও) এবং ডায়াকনি ক্যাটাসট্রোফেন হিলফে (ডিকেএইচ)এর অর্থায়নে হিউম্যানিটেরিয়ান এ্যাসিস্টেন্স ইনদি সেক্টরস অব প্রোটেকশন,ওয়াশ,শেল্টার/এনএফআই এজ ওয়েল এজ সাইট ম্যানেজমেন্ট এন্ড সাইট ডেভেলপমেন্ট ফর রোহিঙ্গা এন্ড হোস্ট কমিউনিটিজ ইন কক্সবাজার, বাংলাদেশ-ওও প্রকল্প বাস্তবায়ন করে আসছে।  উক্ত প্রকল্পের নানাবিধ কর্মসূচির মাধ্যমে কিশোর-কিশোরীদের উন্নয়ন ও সৃজনশীল চর্চার বিকাশ ঘটাতে সক্ষম হয়।কমিউনিটি বেইজড শিশু সুরক্ষা কমিটির (সিবিসিপিসি) সামর্থ্য বৃদ্ধি করে শিশু/কিশোর-কিশোরীদের অধিকার প্রতিষ্ঠা তথা সামাজিক সুরক্ষায় এএসডি নিবিড়ভাবে কাজ করছে। কর্মীবৃন্দের জ্ঞান ও দক্ষতা বৃদ্ধির প্রয়োজনে বিভিন্ন প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হয়।অনুরূপভাবে শিশু সুরক্ষায় কেইজ ম্যানেজমেন্ট একটি বিশেষ উল্লেখযোগ্য বিবেচ্য বিষয়। কর্মীদের কার্যকর পরিকল্পনা প্রণয়ন ও সুষ্ঠু বাস্তবায়নের লক্ষ্যে দক্ষতার বিকল্প নাই।সেজন্য চাইল্ড প্রটেকশন সাব-সেক্টর (সিপিএসএস) ও কেইজ ম্যানেজমেন্ট টেকনিক্যাল ওয়ার্কিং গ্রুপ এর যৌথ সহায়তায় উক্ত প্রশিক্ষণের আয়োজন করা হয়। সেভ দ্যা চিলড্রেন, গুড নেইভারস বাংলাদেশ (জিএনবি) এবং ব্র্যাক এর চৌকষ প্রশিক্ষক দল এই প্রশিক্ষণের সহায়ক ছিলেন। উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে মোঃ দেলোয়ার হোসেন-সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা তিনদিন ব্যাপী উক্ত প্রশিক্ষণের উদ্বোধন করেন। এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হাবিবুর রহমান-উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা।সমাপনী দিবসে গতকাল প্রশিক্ষক দলের সদস্য যথাক্রমে সালাহ উদ্দিন, নিংনিং রাখাইন,আব্দুল হালিম বোখারী এবং সাজেদুল ইসলাম প্রশিক্ষণার্থীদের বলেন যে, শিশু সুরক্ষার বিষয়টি অধিকার ভিত্তিক এপ্রোচ এর একটি উল্লেখযোগ্য বিষয়। কার্যকর পরিকল্পনার ভিত্তিতে কমিউনিটির সকল পর্যায়ের লোকদের সম্পৃক্ত করে এর সফলতা আনতে হবে। এএসডি-র প্রকল্প ব্যবস্থাপক রোকন উদ্দিন আহমেদ এর সঞ্চালনায় টেকনাফ উপজেলা ভূমি কমিশনার সৈয়দ সাফকাত আলী উক্ত প্রশিক্ষণের সমাপনী বক্তব্যে বলেন যে, শিশুর অধিকারের বিভিন্ন ইস্যুর অবশ্যই গুরুত্ব দিতে হবে।তাদের উন্নয়নে নিরাপদ পরিবার ও সমাজ প্রতিষ্ঠা জরুরি। কর্ম এলাকার বিভিন্ন স্তরের পেশাজীবিদের যুক্ত করে একটি সামাজিক সুরক্ষা বেষ্টনী তৈরি করতে হবে যেখানে সকল শিশু/কিশোর-কিশোরীদের শিক্ষা ও কারিগরী জ্ঞান বৃদ্ধির সুযোগ থাকবে।পজিটিভ প্যারেন্টিং ও সামাজিক সুরক্ষা নেটওয়ার্ক এক্ষেত্রে জোরালো ভূমিকা নিতে পারে।