চট্টগ্রাম শিল্পকলা একাডেমির কার্যনির্বাহী কমিটির নির্বাচন অনুষ্ঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক: চট্টগ্রাম জেলা শিল্পকলা একাডেমির কার্যনির্বাহী কমিটির ত্রি-বার্ষিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে কমিটির সাধারণ সম্পাদক পদে ফের সাইফুল আলম বাবু নির্বাচিত হয়েছেন।

শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে শনিবার (৮ জুন) সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত একটানা ভোট নেওয়া হয়। গণনা শেষে সন্ধ্যায় ফলাফল ঘোষণা করেন নির্বাচনে রিটার্নিং অফিসারের দায়িত্ব পালন করা চট্টগ্রামের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মো. সাদি উর রহিম জাদিদ।

জানা গেছে, নির্বাচনে মোট ৬২৪ জন ভোটারের মধ্যে ৫৭০ জন ভোট দেন। পদাধিকার বলে চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক শিল্পকলার কার্যনির্বাহী কমিটির সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। একইভাবে শিল্পকলার কালচারাল অফিসার অর্থ সম্পাদকের দায়িত্বে থাকেন। এর বাইরে সহ-সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, ‍যুগ্ম সম্পাদক ও সদস্য – এ চার পদে নির্বাচন হয়েছে।

সহ-সভাপতির দু’টি পদের জন্য চারজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন। এতে আবৃত্তিশিল্পী অঞ্চল কুমার চৌধুরী ২৫৭ এবং নাট্যজন এস কে এস মাহমুদ (আলোক মাহমুদ) ২৪৯ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন।

সাধারণ সম্পাদক পদে নাট্যজন সাইফুল আলম বাবু ৩৩৯ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বী আবৃত্তিশিল্পী মুহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম (হাসান জাহাঙ্গীর) পেয়েছেন ২২৩ ভোট।

যুগ্ম সম্পাদকের দু’টি পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন ছয় জন। এর মধ্যে সঙ্গীতশিল্পী আলাউদ্দিন তাহের ২৭৮ ও আবৃত্তিশিল্পী কঙ্কন দাশ ২৫৭ ভোট পেয়ে জয়ী হন।

কার্যকরী সদস্য পদ তিনটি। এতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন ১০ জন। এর মধ্যে নাট্যকর্মী বাপ্পা চৌধুরী ২২৭, আবৃত্তিশিল্পী বিশ্বজিৎ পাল ২১৭ ও নাট্যকর্মী রহিমা খাতুন লুনা ২১৭ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন।

ফলাফল ঘোষণার পর বিজয়ী সাধারণ সম্পাদক সাইফুল আলম বাবু সাংবাদিকদের বলেন, ‘শিল্পকলা একাডেমির যে কার্যক্রম, কর্মশালা, সেমিনার, উৎসবের আয়োজন করা, সেগুলোতে আমি সচেষ্ট থাকব। বছরে অন্তত একবার সদস্যদের নিয়ে মিলনমেলা হবে। সকল সদস্যের সঙ্গে বসে আমি পারস্পরিক আলাপ-আলোচনা, মতবিনিময়ের মাধ্যমে শিল্পকলা একাডেমির কার্যনির্বাহী কমিটির কর্মকাণ্ড নির্ধারণ করব। জয়-পরাজয় এটা কোনো বিষয় নয়। আমরা সবাই সংস্কৃতি অঙ্গনের, একমঞ্চের মানুষ। আমরা সবাই মিলে একটা ভোট উৎসব করেছি। সবাই মিলেমিশে এগিয়ে যাব।’

চট্টগ্রাম জেলা শিল্পকলা একাডেমির কার্যনির্বাহী কমিটির প্রথম নির্বাচন হয়েছিল ২০১৮ সালের ২১ জুলাই। করোনার সংক্রমণ পরিস্থিতিতে তিন বছর পর আর নির্বাচন হয়নি। ছয় বছরের মাথায় এসে দ্বিতীয় নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দিনভর সংস্কৃতিকর্মীদের আনাগোণায় উৎসবমুখর ছিল শিল্পকলা প্রাঙ্গণ।