যে কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মান উন্নয়নে প্রধান শক্তি শিক্ষক-শিক্ষার্থী এবং অভিভাবকের সমন্বয়

শিক্ষক-শিক্ষার্থী এবং অভিভাবকের সমন্বয় যে কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মান উন্নয়নে প্রধান শক্তি। এ শক্তিকে যথাযথ ব্যবহার করা গেলে যে কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান তার শীর্ষ স্থানে পৌছতে বেগ পেতে হবে না। শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার পরিবেশ নিশ্চিত এবং শিক্ষকদের সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করতে হবে। আবদুস সালাম আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের সম্মানিত প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালনা কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব মো. আবদুস সালামের সভাপতিত্বে ও শিক্ষক মো. নিজাম উদ্দীনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন।
৪ জুন, মঙ্গলবার, সকাল ১১টায়, বিদ্যালয়ের অফিস কক্ষে অন্যদের মধ্যে আলোচনায় অংশ নেন বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির অন্যতম সদস্য লেখক-সাংবাদিক শওকত বাঙালি, মো. মহিউদ্দিন বখতেয়ার, ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মো. জসীম উদ্দীন, সাধারণ অভিভাবক সদস্য মৌলানা ইউছুপ নূরী, সংরক্ষিত সাধারণ মহিলা অভিভাবক সদস্য হোসনে আরা বেগম, সাধারণ শিক্ষক সদস্য আশিষ কুমার দে, সাধারণ মহিলা শিক্ষক সদস্য ইলু বড়ুয়া।
অভিভাবকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন অঞ্জু বড়ুয়া, মোহাং ওছমান, নাসরিন আকতার, সাহেদা নাছরিন, বায়তুন্নুর, রুমা আকতার, নুরজাহান, শাহী আক্তার, বিদর্শন বড়ুয়া, জোছনা আকতার, নাজমল হুদা, রেজাউল করিম, পান্না বড়ুয়া প্রমুখ।
সভায় গত সভার কার্যবিবরণী পাঠ ও অনুমোদন করা হয়। ২০২৪ সালের এস.এস.সি’র ফলাফলে সন্তোষ প্রকাশ করা হয়। বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী এস. এম আলাউদ্দীনকে আজীবন দাতা হিসেবে স্বীকৃতি প্রদান করা হয়। ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মো. জসীম উদ্দীন ও সহকারী শিক্ষক ইলু বড়–য়ার প্রভিডেন্ট ফান্ড চালুর বিষয়ে সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়।
বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা জনাব আবদুস সালাম বলেন, আমাদের বিদ্যালয়কে শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠানে পরিণত করতে আমি সব ধরনের প্রস্তুতি গ্রহণ করতে চাই। তিনি শিক্ষকমন্ডলী, অভিভাবকবৃন্দ এবং শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, ত্রয়ী সমন্বয় হতে হবে যেকোন মূল্যে।