বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সবসময় সাহস ও অনুপ্রেরণা দিতেন

‘চট্টগ্রাম বিশ^বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া উৎসব-২০২৪’ উদযাপন উপলক্ষ্যে ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ চবি কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে চবি বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হলের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এদিন সকাল ৯:৩০ টায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এ ক্রীড়া প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন চবি কেন্দ্রীয় বার্ষিক ক্রীড়া উপদেষ্টা কমিটির সভাপতি ও চবি মাননীয় উপ-উপাচার্য (একাডেমিক) প্রফেসর বেনু কুমার দে। এতে সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চবি সমাজ বিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর সিরাজ উদ-দৌল্লাহ ও চবি ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. রাশেদ মোস্তাফা। চবি বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হলের প্রভোস্ট প্রফেসর ড. উদিতি দাশ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন চবি শারীরিক শিক্ষা বিভাগের পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) আনিসুল আলম।
মাননীয় উপ-উপাচার্য (একাডেমিক) তাঁর বক্তব্যে আমন্ত্রিত অতিথিসহ নারী ক্রীড়াবিদ ও উপস্থিত সকলকে শুভেচ্ছা এবং স্বাগত জানান। তিনি বলেন, “বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব-একজন মহিয়সী নারী, তাঁর নামে চট্টগ্রাম বিশ^বিদ্যালয়ে ছাত্রীদের জন্য প্রতিষ্ঠিত হয়েছে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হল। তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সবসময় সাহস ও অনুপ্রেরণা দিতেন। তাঁর ত্যাগ, দেশপ্রেম, উদারনৈতিকতা, মমত্ববোধ, জাতীয়তাবোধ ও গণতান্ত্রিক আদর্শিক চেতনা তরুণ প্রজন্মকে ধারণ করে এগিয়ে যেতে হবে।” মাননীয় উপ-উপাচার্য (একাডেমিক) আরও বলেন, “লেখাপড়ার পাশাপাশি খেলাধুলা ও শরীরচর্চায় বিভিন্ন প্রতিযোগিতার পুরুষদের পাশাপাশি নারীরাও এগিয়ে যাচ্ছে; এটি আমাদের জন্য সম্ভাবনার।” তিনি চবি বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হলের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার সার্বিক সফলতা কামনা করেন। পরে অতিথিদের সাথে নিয়ে বেলুন ও ফেস্টুন উড়িয়ে তিনি উক্ত হলের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা-২০২৪ এর শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করেন।
ক্রীড়া উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন চবি বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হলের শিক্ষার্থী তানজিয়া রহমান, পবিত্র গীতা থেতে পাঠ করেন প্রসারী ভট্টাচার্য্য, পবিত্র ত্রিপিটক থেকে পাঠ করেন রাজশ্রী চাকমা এবং পবিত্র বাইবেল থেকে পাঠ করেন জৌনাইকিং পাংখোয়া। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন চবি ডেপুটি রেজিস্ট্রার (তথ্য) মোহাম্মদ হোসেন।
অনুষ্ঠানে জাতীয় সংগীতের সুরের মুর্চ্ছনায় মাননীয় উপ-উপাচার্য (একাডেমিক) জাতীয় পতাকা, সমাজ বিজ্ঞান অনুষদের ডিন ও ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের ডিন বিশ^বিদ্যালয় পতাকা, চবি বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হলের প্রভোস্ট হল পতাকা এবং শারীরিক শিক্ষা বিভাগের পরিচালক অলিম্পিক পতাকা উত্তোলন করেন। মশাল হাতে মাঠ প্রদক্ষিণ করেন উক্ত হলের কৃতি ক্রীড়াবিদ প্রতিশা চাকমা। বিচারকদের পক্ষে প্রধান বিচারক চবি পদার্থবিদ্যা বিভাগের প্রফেসর ড. শ্যামল রঞ্জন চক্রবর্তী এবং ক্রীড়াবিদদের পক্ষে কৃতি ক্রীড়াবিদ জেবা তাহসিনকে মাননীয় উপ-উপাচার্য শপথবাক্য পাঠ করান। চবি বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হলের আবাসিক শিক্ষক উম্মে ইফফাত এর নির্দেশনায় ও দলের টিম ম্যানেজার হলের আবাসিক শিক্ষক মোহাম্মদ রোকন উদ্দিন এর তত্বাবধানে হলের শিক্ষার্থী কৃতি ক্রীড়াবিদ জেবা তাহসিন এর নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত হয় মার্চপাস্ট। হলের পতাকা বহন করেন হলের কৃতি ক্রীড়াবিদ ইতি চাকমা।
অনুষ্ঠানে চবি সিনেট ও সিন্ডিকেট সদস্যবৃন্দ, চবি রেজিস্ট্রার, চবি বিভিন্ন হলের প্রভোস্টবৃন্দ, চবি প্রক্টর ও সহকারী প্রক্টরবৃন্দ, চবি বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হলের আবাসিক শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ, চবি বিভিন্ন বিভাগীয় সভাপতি, ইনস্টিটিউট ও গবেষণা কেন্দ্রের পরিচালকবৃন্দ, বিভিন্ন অফিস প্রধানবৃন্দ, চবি কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ, ক্রীড়ামোদী শিক্ষার্থীবৃন্দ, প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ এবং সূধীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।